২৯ জুন ২০২২, বুধবার, ০৩:০৩:৫০ পূর্বাহ্ন


কুমিল্লায় বাড়ছে রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা
স্টাফ রিপোর্টার
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৯-০৪-২০২১
কুমিল্লায় বাড়ছে রোটা ভাইরাসে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ফাইল ছবি


কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে হাসপাতালে। আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে হাসপাতালে। আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে হাসপাতালে। আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন।

কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে রোটা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব বৃদ্ধি পেয়েছে। প্রতিদিন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গড়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। চিকিৎসকদের দাবি, সরকারিভাবে এ ভাইরাসের টিকা প্রয়োগ না করায় শিশুরা সহজেই এ ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রোটা ভাইরাস আক্রান্ত শিশুদেরকে নিয়ে অভিভাবকরা চিকিৎসাসেবা নিতে প্রতিদিন ভিড় করছে হাসপাতালে। আবার অনেকে তাদের সন্তানদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করাচ্ছেন।

শেয়ার করুন